ফ্রিল্যান্সাররা পাবেন ৪% প্রনোদনা (৫৫ মার্কেটপ্লেসের ইনকামে)

freelancer pronodona

বাংলাদেশ সরকার ঘোষণা করেছেন ফ্রিল্যান্সাররা ৫৫ টি মার্কেটপ্লেসের ইনকামে ৪% করে প্রণোদনা পাবেন। রোববার ৩০ জানুয়ারি ২০২২ বাংলাদেশ ব্যাংক এক সার্কুলারে তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগ স্বীকৃত এসব মার্কেটপ্লেসের তালিকা প্রকাশ করে। যেসব মার্কেটপ্লেসে সফটওয়্যার ও আইসিটি খাতে কাজ করে আয় করা অর্থের বিপরীতে ৪ শতাংশ প্রণোদনা পারবেন ফ্রিল্যান্সাররা।

ফ্রিল্যান্সিং মার্কেটপ্লেস, মাইক্রোস্টক, প্লেস্টোর, ইউটিউব / ফেসবুক মনেটাইজেশন এবং এমাজন থেকে আয়কারি সকলেই পাবেই এই প্রণোদনা।

এখানে বলে রাখা ভালো, অধিকাংশ মার্কেটপ্লেসের টাকা সারি সারি বাংলাদেশ ব্যাংকে আসে না। আনুমানিক ৮০% টাকা আসে পেওনিয়ার এবং ওয়াইজ ট্রান্সফারে মাধ্যমে। আপওয়ার্কে কাজ করা কেউ কেউ ডাইরেক্ট ব্যাংক ট্রান্সফার করলেও অধিকাংশ ফ্রিল্যান্সারই পেওনিয়ার কিংবা ওয়াইজ ব্যবহার করে থাকেন।

ফিল্যান্সারদের আয় করা বিদেশি কারেন্সি মিচুয়াল ট্রাস্ট ব্যাংক ওয়াইজ ট্রান্সফারের ফান্ড প্রসেস করে এবং ব্যাংক এশিয়া পেওনিয়ারের ফান্ড প্রসেস করে। ওয়াইজ টান্সফারের ক্ষেত্রে প্রথম থেকেই ২% প্রণোদনা পেয়ে আসছিলেন ফ্রিল্যান্সাররা, যদিও রিসেন্টলি সেটা ২.৫% হারে পাওয়া যাচ্ছে। ওয়াইজ ইন্ডাস্ট্রিতে নতুন হলেও ব্যবহারকারী কিন্তু কম নয়। পক্ষান্তরে পেওনিয়ার আইটি রেমিটেন্স প্রসেসিংএর ক্ষেত্রে ইন্ডাস্ট্রি লিডার, কিন্তু এই চ্যানেলে রেমিটেন্স আসলে প্রণোদনা পাওয়া যেত না। যেটা নিয়ে অনেকেই আক্ষেপ প্রকাশ করে আসছিলেন।

এখন ফ্রিল্যান্সারদের প্রশ্ন হচ্ছে সরকার যে ৫৫ টি ওয়েবসাইটের তালিকা প্রকাশ করেছে সেগুলোর ফান্ড যাচাই বাচাই কিভাবে করবে? কারণ তাদের সিংহভাগ রেমিটেন্স প্রসেস করে পেওনিয়ার এবং ওয়াইজ। গুগল, ফেসবুক এর মত অন্যান্য বড় কিছু প্রতিষ্ঠান ছাড়া অন্য সকল মেজর মার্কেটপ্লেস ওয়েবসাইটের ফান্ড আসে পেওনিয়ার এবং ওয়াইজের মাধ্যমে।

এক্ষেত্রে বলে রাখা ভালো, ফ্রিল্যান্সাররা এই উদ্যোগটিকে বিষয়টিকে স্বগত জানিয়েছেন এবং সুস্পষ্ট নিতিমালা জানার আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

এ কথা বলার অপেক্ষা রাখে না যে এই উদ্যোগের ফলে ডলার বাই সেল উল্যেখযোগ্য হারে কমে যাবে এবং পুরনোদের পাশাপাশি নতুনরা এ খাতে আরও অনেক বেশি উৎসাহিত বোধ করবে।

এর আগে বাংলাদেশ ব্যাংক ২০২১ সালের ২০ সেপ্টেম্বর এক সার্কুলারে সফটওয়্যার ও আইটিইএস সেবা রপ্তানির বিপরীতে ব্যক্তি পর্যায়ের ফ্রিল্যান্সারদের জন্য রপ্তানিতে নগদ প্রণোদনা পাওয়ার ক্ষেত্রে মার্কেটপ্লেসকে তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের স্বীকৃত হওয়ার শর্ত দেয়া হয়।

বাংলাদেশ ব্যাংক প্রকাশিত সার্কুলারটি নিচে যুক্ত করা হল।

Share:

Facebook
Twitter
Pinterest
LinkedIn

Leave a Comment

Your email address will not be published.

Get monthly free recourse

Subscribe To Our Monthly Update

No spam, notifications only about new products, updates.

ফিচার্ড প্রোডাক্ট সমূহ

ফিচার্ড আর্টিকেল

বিষয় ভিত্তিক আর্টিকেলস

On Key

Related Posts

Shopping Cart